Skip to content

আরও একটি বিপ্লব টলিয়ে দিতে পারে রাশিয়ার ক্ষমতাসীনদের তখত: প্রিগোজিন | আন্তর্জাতিক

আরও একটি বিপ্লব টলিয়ে দিতে পারে রাশিয়ার ক্ষমতাসীনদের তখত: প্রিগোজিন | আন্তর্জাতিক

<![CDATA[

রাশিয়ার নেতারা যদি যুদ্ধ পরিচালনা পদ্ধতিতে উন্নতি করতে না পারেন, তবে তাদের আরও একটি বিপ্লবের মুখোমুখি হতে হবে। এতে বর্তমান শাসকদের ক্ষমতার তখত টলে যেতে পারে বলে সতর্কবার্তা দিয়েছেন রাশিয়ার ভাড়াটে সেনা সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ওয়াগনারের প্রধান ইয়েভজেনি প্রিগোজিন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়েছে, বুধবার (২৪ মে) সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টেলিগ্রামে নিজস্ব চ্যানেলে প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে ওয়াগনার প্রধান এ দাবি করেন। বাখমুতে ওয়াগনারের ২০ হাজার সেনা নিহত হয়েছে বলে দাবি করেন ইয়েভজেনি প্রিগোজিন। 

 

তিনি জানান, বাখমুত দখল করতে গিয়ে ওয়াগনারের ২০ হাজার সেনা নিহত হয়েছে। ওয়াগনারের নিয়মিত সৈন্যসংখ্যা ৫০ হাজার। এরপর আরও ৫০ হাজার সেনাকে নতুন করে ভর্তি করা হয়। এর মধ্যে ২০ শতাংশই নিহত হয়েছে।

 

ওয়াগনার প্রধান আরও জানান, তিনি দেখতে পেয়েছেন যে, যুদ্ধক্ষেত্রেও সামাজিক বৈষম্য হাজির হয়েছে। তিনি বলেন, গরিব ঘরের সেনারা মারা যাওয়ার পর তাদের স্রেফ জিংক কফিনে ভরে বাড়িতে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। বিপরীতে বড়লোকদের সন্তানদের দেয়া হচ্ছে রাজকীয় মর্যাদা।

 

আরও পড়ুন: বাখমুতে ওয়াগনারের ২০ হাজার সেনা নিহত: প্রিগোজিন

 

প্রিগোজিন সতর্ক করে বলেন, ‘এই বিভাজন আবারও ১৯১৭ সালের মতো একটি বিপ্লব দিয়ে শেষ হতে পারে।’ তিনি বলেন, ‘প্রথমে সৈন্যরা উঠে দাঁড়াবে, তারপর তাদের প্রিয়জনরা উঠে দাঁড়াবে।’

 

জনগণের এই বিদ্রোহ ক্ষমতাসীনদের তখত টলিয়ে দিতে পারে সতর্ক করে প্রিগোজিন বলেন, ‘এরই মধ্যে এমন হাজারো মানুষ দাঁড়িয়ে গেছে, যাদের স্বজনরা যুদ্ধক্ষেত্রে প্রাণ হারিয়েছে। এবং যুদ্ধ পরিচালনা উন্নত না করতে পারলে এমন আরও লাখো মানুষ দাঁড়িয়ে যাবে, যা আমরা আর এড়াতে পারব না।’

 

সাক্ষাৎকারে প্রিগোজিন নিজেকে ‘পুতিনের পাচক’ বলার পরিবর্তে নিজেকে ‘পুতিনে কসাই’ বলার পরামর্শ দেন। তিনি বলেন, ‘পুতিনের পাচকের চেয়ে পুতিনের কসাই আমার জন্য ভালো ডাকনাম।’ উল্লেখ্য, এক সময় রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের খাবার সরবরাহ করতেন ইয়েভজেনি প্রিগোজিন।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *