Skip to content

আশ্রয়শিবিরে গোলাগুলিতে রোহিঙ্গা শিশু নিহত | বাংলাদেশ

আশ্রয়শিবিরে গোলাগুলিতে রোহিঙ্গা শিশু নিহত | বাংলাদেশ

<![CDATA[

কক্সবাজারের উখিয়া আশ্রয়শিবিরে রোহিঙ্গা দুর্বৃত্তদের সঙ্গে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) গোলাগুলিতে তাসদিয়া আক্তার নামে এক শিশু নিহত হয়েছে। এ সময় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত হয়েছেন এক গৃহবধূ।

মঙ্গলবার (০৪ সেপ্টেম্বর) ভোরে উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের ১৮ নম্বর ময়নারঘোনা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এইচ-৫২ ব্লকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত শিশুর নাম তাসদিয়া আক্তার (১১)। সে উখিয়ার ১৮ নম্বর ময়নারঘোনা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এইচ-৫২ ব্লকের মো. ইয়াছিনের মেয়ে।

আহত দিল আয়াছ (১৮) একই ক্যাম্পের মোহাম্মদ নুরের স্ত্রী। হতাহতরা সম্পর্কে ননদ-ভাবি।

স্থানীয়দের বরত দিয়ে  ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক অ্যাডিশনাল ডিআইজি মো. আমির জাফর বলেন, ভোরে উখিয়ার ১৮ নম্বর ময়নারঘোনা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এইচ-৫২ ব্লকে একদল দুর্বৃত্ত দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত বিভিন্ন বসতঘরে হামলা শুরু করে। একপর্যায়ে ওই ক্যাম্পের রোহিঙ্গাদের লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়ে দুর্বৃত্তরা। এতে শিশুসহ দুজন আহত হয়।

পরে খবর পেয়ে এপিবিএন পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। এ সময় দুর্বৃত্তরা এপিবিএন সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। আত্মরক্ষার্থে এপিবিএন সদস্যরাও পাল্টা গুলি ছুড়লে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যান।

আরও পড়ুন: ফের ক্যাম্পে গুলি, রোহিঙ্গা নিহত

এপিবিএন অধিনায়ক বলেন, দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যাওয়ার পর ঘটনাস্থল থেকে আহত দুজনকে উদ্ধার করে উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক শিশু তাসদিয়া আক্তারকে মৃত ঘোষণা করেন। আহত অপর জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে ঘটনার পর থেকে জড়িতদের শনাক্ত করে গ্রেফতারে এপিবিএন পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে বলে জানান মো. আমির জাফর।

উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী জানান, ভোরে উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে গুলিবিদ্ধ এক রোহিঙ্গা শিশুর মরদেহ পুলিশ উদ্ধার করেছে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *