Skip to content

ইউক্রেনের নাৎসি সরকার পরিবর্তন করাই রাশিয়ার লক্ষ্য | আন্তর্জাতিক

ইউক্রেনের নাৎসি সরকার পরিবর্তন করাই রাশিয়ার লক্ষ্য | আন্তর্জাতিক

<![CDATA[

রাশিয়া এবং ইউক্রেনের জনগণের মধ্যে কোনো যুদ্ধ নেই। বরং এই যুদ্ধ ইউক্রেনকে ব্যবহার করে যুক্তরাষ্ট্র চালিয়ে যাচ্ছে। তাই রাশিয়ার লক্ষ্য হলো, যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিস্থাপিত ইউক্রেনের ক্ষমতায় আসীন ‘নাৎসি সরকারকে’ বদলে দেয়া।

বুধবার (৭ জুন) রাশিয়ার জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সচিব নিকোলাই পাত্রুশেভ বেলারুশের জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সচিব আলেকজান্দর ভলফোভিচের সঙ্গে বৈঠকের সময় এ কথা বলেছেন।

 

পাত্রুশেভ বলেন, কিয়েভের বর্তমান সরকার একটি নাৎসি মতাদর্শের সরকার। যা ওয়াশিংটন এবং লন্ডন ইউক্রেনে স্থাপন করে দিয়েছে। এই সরকারকে অবশ্যই বদলে দিতে হবে। তিনি আরও বলেন, ইউক্রেনকে অবশ্যই নিরপেক্ষ রাষ্ট্র হতে হবে। পাত্রুশেভ অভিযোগ করেন, এই সংকট আর কোনো পক্ষকে নয় বরং কেবল যুক্তরাষ্ট্রকেই ফায়দা করে দিচ্ছে।  

 

রাশিয়ার নিরাপত্তা পরিষদের এই শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, যুক্তরাষ্ট্র এরই মধ্যে ইউরোপকে নতজানু করে ফেলেছে এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নকে দুর্বল করে কেবল যুক্তরাষ্ট্রের ফায়দা বাড়িয়ে নেয়ার সুযোগ খুঁজছে। এ সময় তিনি আরও বলেন, শক্তিশালী ইউরোপ বহুমেরুক বিশ্বের অন্যতম একটি ভারকেন্দ্র হতে পারত।

 

আরও পড়ুন: পূর্ব ইউরোপে সৈন্য সংখ্যা দ্বিগুণ করেছে ন্যাটো

 

পাত্রুশেভ অভিযোগ করেন, যুক্তরাষ্ট্র শক্তিশালী রাশিয়া দেখতে চায় না বরং সবসময় রাশিয়াকে বিভক্ত করার এমনকি রাষ্ট্র হিসেবে রাশিয়াকে ব্যর্থ করে দেয়ার চেষ্টা করে। যাতে যুক্তরাষ্ট্র ইউরেশিয়ান ভূখণ্ডের ওপর কর্তৃত্ব স্থাপন করে সেখানকার যাবতীয় সম্পদ লুট করতে পারে। তিনি আরও বলেন, এমনটা করার জন্য ওয়াশিংটন এবং লন্ডন ন্যাটো, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ইউক্রেনের নব্য নাৎসি, ইউক্রেনের সরকার এবং বিভিন্ন এনজিওকে ব্যবহার করছে।  

 

রাশিয়ার এই নেতা আরও অভিযোগ করেন, পশ্চিমা বিশ্ব রাশিয়ার মিত্র বেলারুশের জন্য ইউক্রেনের মতো একই পরিকল্পনা করছে। তার উদাহরণ হিসেবে তিনি দেশটিতে ২০২০ সালে ব্যর্থ হওয়া কালার রেভোলিউশনের কথা উল্লেখ করেন।   

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *