Skip to content

ইফতিখারের সেঞ্চুরি ও সাকিবের ঝড়ে আড়াইশ ছুঁইছুঁই সংগ্রহ বরিশালের | খেলা

ইফতিখারের সেঞ্চুরি ও সাকিবের ঝড়ে আড়াইশ ছুঁইছুঁই সংগ্রহ বরিশালের | খেলা

<![CDATA[

ইফতিখার আহমেদ ও সাকিব আল হাসানের ঝড়ে রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে প্রায় আড়াইশ ছুঁইছুঁই সংগ্রহ পেয়েছে ফরচুন বরিশাল। ৪ উইকেট হারিয়ে তাদের সংগ্রহ ২৩৮। জয়ের জন্য ২৩৯ রান করতে হবে রংপুরকে। ইফতিখার পূর্ণ করেছেন সেঞ্চুরি।

বিপিএল ইতিহাসে সর্বোচ্চ রানের ইনিংসটি ২৩৯ রানের। ২০১৯ সালে সেই রেকর্ডটি করেছিল রংপুর রাইডার্স। এক রানের জন্য সেই রেকর্ড ভাঙতে পারেনি বরিশাল।

আরও পড়ুন: ব্যাটিংয়েও অবদান রাখতে চান পেসার তাসকিন

বরিশাল ৪৬ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলার পর সাকিব ও ইফতিখার মিলে গড়েন ১৯২ রানের জুটি। শেষ পর্যন্ত সাকিব ৮৯ ও ইফতিখার ১০০ রানে অপরাজিত ছিলেন। এরমধ্যে ইফতিখার এক ওভারেই নেন ২৫ রান।

দুই ওপেনারের মধ্যে মেহেদী হাসান মিরাজ ২৪ ও এনামুল হক ১৪ রান করেন। ইব্রাহিম জাদরান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ রানের খাতাই ‍খুলতে পারেননি। এরপর লম্বা জুটি গড়েন সাকিব ও ইফতিখার। ১১ ওভার শেষে ৯৪ রান ছিল তাদের।

১২তম ওভার করতে আসেন শামিম পাটোয়ারি। সেই ওভারে ঝড় তুলেন ইফতিখার। ওই ওভারের প্রথম, তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম বলে ছক্কা হাঁকান পাকিস্তানি ব্যাটার, দ্বিতীয় বলে কোনো রান নিতে পারেননি তিনি। ওভারের শেষ বলে ইফতিখার ক্যাচ তুলে দেন থার্ডম্যান অঞ্চলে। রনি তালুকদার সেই ক্যাচ লুফে নিতে ব্যর্থ হলে জীবন পান ইফতিখার, দৌড়ি একটি রানও নেন তিনি।

আরও পড়ুন: বাংলাদেশের মানুষ খেলাটাকে ভালোবাসে: ম্যাক্স ও’দাউদ

পরের ওভারে ইফতিখার হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করেন। ইফতিখারের মতো অর্ধশতক করেন সাকিব আল হাসানও। শেষ দিকে রংপুরের বোলারদের ওপর রীতিমতো স্টিমরোলার চালান। শেষ পর্যন্ত ৪৫ বলের ইনিংসে ৬টি চার ও ৯টি ছয়ের মার খেলেন ইফতিখার। বরিশালের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন হাসান মাহমুদ ও হারি রউফ।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *