Skip to content

ইরানের ড্রোন কর্মসূচীর উপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা | আন্তর্জাতিক

ইরানের ড্রোন কর্মসূচীর উপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা | আন্তর্জাতিক

<![CDATA[

ইরানের ড্রোন কর্মসূচীর উপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরা জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ ইউক্রেন যুদ্ধে রাশিয়া ইরানের ড্রোন ব্যবহার করে হামলা চালাচ্ছে।

 শুক্রবার(৬ জানুয়ারি) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন বলেছেন, ইরানি ইউএভি প্রস্তুতকারক কোডস এভিয়েশন ইন্ডাস্ট্রিজ, ইরানের অ্যারোস্পেস ইন্ডাস্ট্রিজ অর্গানাইজেশন (এআইও) দেশটির ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি নেতৃত্বে থাকা সাত ব্যক্তির উপর এই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।  

 

বিবৃতিতে ব্লিঙ্কেন বলেন, ইরান এখন রাশিয়ার শীর্ষ সামরিক সাহায্যকারী হয়ে উঠেছে। ইরানকে অবশ্যই ইউক্রেনে রাশিয়ার বিনা উস্কানিমূলক আগ্রাসনের জন্য তার সমর্থন দেয়া বন্ধ করতে হবে।  তাদের এই কার্যকলাপ বন্ধে আমরা আমাদের সবটুকু সামর্থ্য কাজে লাগাবো।  

 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, ইউক্রেনে ধ্বংসযজ্ঞ চালাতে ইরানি ড্রোন ব্যবহার করছে রাশিয়া। এতে বেসামরিক নাগরিকদের সর্বোচ্চ মূল্য দিতে হচ্ছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এর আগে ইরানি ড্রোনের দুটি মডেল “শাহেদ এবং মোহাজের-সিরিজ ইউএভি” উত্পাদন এবং স্থানান্তরের সাথে জড়িত ইরানী সংস্থাগুলিকে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে।  

 

আরও পড়ুন: জামিনে মুক্ত ইরানি অভিনেত্রী তারানেহ

 

কিয়েভ এবং মস্কো উভয়ই যুদ্ধের সময় কখনও নজরদারির জন্য এবং কখনও কখনও মারাত্মক আক্রমণের জন্য ড্রোন ব্যবহার করেছে। এই সপ্তাহের শুরুর দিকে, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি অভিযোগ করে বলেছেন, রাশিয়া ইউক্রেনকে “নিঃশেষ” করতে ইরানের তৈরি ড্রোনের উপর নির্ভর করছে।

 

ইরান এর আগে ইউক্রেন যুদ্ধে ব্যবহারের জন্য রাশিয়াকে ড্রোন সরবরাহের কথা অস্বীকার করে। তবে নভেম্বরে, দেশটি নিশ্চিত করেছে তারা মস্কোকে “সীমিত সংখ্যক” ড্রোন দিয়েছে। ইরান বলেছে, ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেন আক্রমণের আগে ড্রোনগুলি রাশিয়ারকে  সরবরাহ করা হয়েছিল।  
 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *