Skip to content

কিশোরগঞ্জে আলোচনায় তেজোদ্দীপ্ত ‘মিস্টার বাংলাদেশ’ | বাংলাদেশ

কিশোরগঞ্জে আলোচনায় তেজোদ্দীপ্ত ‘মিস্টার বাংলাদেশ’ | বাংলাদেশ

<![CDATA[

কিশোরগঞ্জে দৃষ্টিনন্দন আর তেজোদ্দীপ্ত কোরবানির পশু ‘মিস্টার বাংলাদেশ’কে নিয়ে চলছে জেলাজুড়ে আলোচনা। তাকে দেখতে খামার মালিক মাহমুদ হাসান সানজিদের বাড়িতে ভিড় করছেন অসংখ্য মানুষ।

কোরবানির ঈদ সামনে রেখে সবার দৃষ্টি কাড়ছে বিশালাকৃতির ষাঁড়টি। এক টনেরও বেশি ওজনের মিস্টার বাংলাদেশকে বিক্রি করতে দাম হাঁকা হচ্ছে ১০ লাখ টাকা।

দেখতে যেমন সুন্দর, চলন-বলনেও আছে একটা বনেদি ভাব! তার দুরন্ত ছুটে চলার সময় দৌড়ে পালায় আশপাশের সবাই। দিনে দিনে সবার প্রিয় হয়ে উঠেছে মিস্টার বাংলাদেশ। সামনের ঈদে কোরবানির জন্য তাকে পেতে চাচ্ছে অনেকেই!

কাজল-কালো বর্ণের বিশালাকৃতির শরীর আর ডাগর ডাগর চোখ মন কাড়ে সবার। ৫ ফুট ৬ ইঞ্চির উচ্চতার মিস্টার বাংলাদেশের বুকের বেড় ৭ ফুট ৮ ইঞ্চি। ফ্রিজিয়ান ও শাহীওয়াল মিশ্রণ জাতের এ ষাঁড়টিকে দৈনিক ১৫ থেকে ১৬ কেজি দানাদার খাবার ও সবুজ ঘাস ছাড়াও সময় করে দিতে হয় অন্যান্য পুষ্টিকর খাবার।

দিনের খাবার মেন্যুতে থাকে ঘাস, ছোলাবুট, ভুট্টা, ভুসি, ধানের কুড়া, খৈল, চিড়া, মিষ্টি কুমড়া, কলা ও আলু।

সাবান ও শ্যাম্পু দিয়ে নিয়ম করে গোসল দিতে হয় তিন বেলা। মাথার ওপরে থাকে বৈদ্যুতিক ফ্যান। চার বছর বয়সী মিস্টারকে দেখতে প্রতিদিন ছুটে আসছেন দূর-দূরান্তের মানুষ। এর আগে এত বড় আর সুন্দর রঙের ষাঁড় কোনোদিন দেখেননি বলে জানান অনেকে।

আরও পড়ুন: যশোরে কোরবানির পশুর হাটে হবে ‘ক্যাশলেস’ লেনদেন

খামারের কর্মচারীরা জানান, কোনো ধরনের মেডিসিন ছাড়াই প্রাকৃতিকভাবে তাকে লালন করে মোটাতাজা করা হচ্ছে। দিনের খাবারের জন্য খরচ হচ্ছে প্রায় দেড় হাজার টাকা। এর পেছনে সময় দিতে হচ্ছে বেশ কয়েকজনকে। প্রতিদিন দেড় থেকে দুই কেজি করে বাড়ছে ষাঁড়টির ওজন। কোরবানির জন্য এটি বিক্রি করতে দাম হাঁকা হচ্ছে ১০ লাখ টাকা।

সানজিদ অ্যাগ্রো ফার্মের মালিক মাহমুদ হাসান সানজিদ বলেন, ‘প্রতিদিন বিভিন্ন এলাকার মানুষ মিস্টার বাংলাদেশকে দেখতে আসে। এতে আমার খুব ভালো লাগে। এবারের কোরবানির হাটে একে বিক্রি করা হবে। ১০ লাখ টাকা দাম চাচ্ছি। এরই মধ্যে কাছাকাছি দাম হয়েছে। আর একটু বাড়লেই বিক্রি করে দেব।’

পাঁচ বছর আগে গরু মোটাতাজাকরণ খামার শুরু করেন শহরের বয়লা এলাকার বাসিন্দা শৌখিন খামারি মাহমুদ হামান সানজিদ। এক বছর আগে মিস্টার বাংলাদেশকে কিনে লালনপালন শুরু করেন তিনি। বর্তমানে এটির ওজন দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৫৫ কেজি। তার খামারে বর্তমানে ২২টি কোরবানির উপযোগী ষাঁড় রয়েছে।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *