Skip to content

ক্ষমতায় থাকতে তত্ত্বাবধায়ক সরকার দিতে চায়নি বিএনপি, আজ কেন আন্দোলন? | বাংলাদেশ

ক্ষমতায় থাকতে তত্ত্বাবধায়ক সরকার দিতে চায়নি বিএনপি, আজ কেন আন্দোলন? | বাংলাদেশ

<![CDATA[

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ক্ষমতায় থাকতে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা দিতে চায়নি বিএনপি, এখন কেন আন্দোলন করছে তারা। শনিবার (১২ আগস্ট) গণভবনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে এ প্রশ্ন রাখেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আওয়ামী লীগকে সরানোই নাকি বিএনপির এক দফা আন্দোলন। দেশবাসীর কাছে আমার প্রশ্ন: কী অপরাধ আওয়ামী লীগের? বিএনপি কি জবাব দেবে, কেন তারা রাজনীতির নামে হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিল? আজ তারা তত্ত্বাবধায়ক সরকার চায়। খালেদা জিয়াসহ বিএনপির সব নেতার কাছে আমার প্রশ্ন: সংসদীয় গণতন্ত্র চেয়েছিলাম আমরা। সেটা তো তারাই চায়নি৷ এখন কী বলবে তারা? তখন খালেদা জিয়া বলেছিলেন যে, পাগল আর শিশু ছাড়া কেউ নিরপেক্ষ নয়। বিএনপির নেতাদের বলছি, তারা কি সেই পাগল আর শিশু খুঁজে পেয়েছে?’
 

তিনি বলেন, স্বাধীনতার পর জিয়াউর রহমান খালেদা জিয়াকে ঘরে নিতে চাননি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জিয়াউর রহমানকে বুঝিয়েছিলেন বলে তাদের সংসারটা টিকেছিল। যার ফলে খালেদা জিয়া নিজেকে বেগম জিয়া বলে পরিচয় দিতে পারেন!
 

 

বঙ্গবন্ধুর খুনিদের কেন তারা পুরস্কৃত করেছিলে, এর জবাব কি বিএনপি দিতে পারবে?

 

ষষ্ঠ জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, ১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনের পর খালেদা জিয়া পদত্যাগ করেছিলেন ভোট চুরির অপরাধে। কেননা, এ দেশের মানুষ ভোট চুরি করলে তা সহ্য করে না, মেনেও নেয় না। তারা আবার এখন এসেছে, ভোট নিয়ে বড় বড় কথা বলে। এখন দেশটা একটু ভালো চলছে, এখন তারা বলছে নানান কথাবার্তা। আসলে তারা দেশটাকে আবার অন্ধকারে নিতে চায়।

 

আরও পড়ুন: শেখ হাসিনাকে চায় ৭০%, দেশ ভুল পথে বলছে ৫৩%

 

প্রশ্ন রেখে সরকারপ্রধান বলেন, 

কেন তারা (বিএনপি) গ্যাং রেপ করেছিল? তাদের কাছে কোনো মা-বোন নিরাপদ ছিল না। সমাজের হিন্দু-মুসলমান-খ্রিষ্টান কেউই বাদ যায়নি তাদের অত্যাচার থেকে। এমন ঘটনা তারা ঘটিয়েছিল ২০০১ সালে  ক্ষমতায় আসার পর। অপারেশন ক্লিনহার্টের নামে তারা শত শত মানুষ হত্যা করেছিল। সিআরআইয়ের অফিস থেকে ফাইলপত্র গায়েব হয়েছিল ওই সময়। এভাবেই তারা অত্যাচার করেছিল। যেখানেই আমরা মিটিং করতাম, সেখানেই বিএনপির গ্রেনেড বোমার আক্রমণ শুরু হয়ে যেত। এমনকি পার্লামেন্টেও এসব নিয়ে কথা বলার সুযোগ দিত না। তারা প্রকাশ্যেই বলত, আরেকটা ১৫ আগস্ট ঘটাবে। তারা নাকি আমাকে মেরে মাটিতে পুঁতে ফেলবে। এসব প্রশ্নের জবাব কী বিএনপি নেতারা দেবেন?

 

‘খালেদা জিয়ার দল তত্ত্বাবধায়ক সরকার চায়, নির্বাচন করতে চায়, গণতন্ত্র উদ্ধার করতে চায়? দেশবাসীকে বলব, বিএনপি কোন গণতন্ত্র উদ্ধার করতে চায়? প্রতিটি খাতকে কেন তারা পিছিয়ে নিয়েছিল? তারা শুধু লুটপাট করেছে, দেশের মানুষকে কিছু দেয়নি। লুটপাট ছাড়া তারা এত টাকা কোথায় পেল? এসবের জবাব মানুষের কাছে তাদের দিতে হবে। দেশের সর্বস্তরের মানুষ অত্যাচারিত, নির্যাতিত ছিল তাদের সময়ে,’ যোগ করেন প্রধানমন্ত্রী।
 

 

শেখ হাসিনা বলেন, 

বিএনপি এফবিআইকে দিয়ে সজীব ওয়াজেদ জয় এবং নাতনি সোফিয়াকে কিডন্যাপ করার পরিকল্পনা করেছিল। কই আমরা তো কখনও এমন করিনি। মানুষের মন জয় করে আওয়ামী লীগ সবসময় ক্ষমতায় এসেছে।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *