Skip to content

জায়নামাজে প্রধানমন্ত্রী, ব্যাপক প্রশংসায় নেটিজেনরা | বাংলাদেশ

No description available.

<![CDATA[

পবিত্র মাহে রমজানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামাজ শেষে জায়নামাজে বসে ধর্মীয় আলোচনার একটি ছবি ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে। শুক্রবার (৩১ মার্চ) আয়েশা সোনিয়া নামে সুপ্রিম কোর্টের এক আইনজীবী তার ফেসবুকে পোস্টে ছবিটি শেয়ার করেছেন।

ছবি পোস্ট করে তিনি লিখেছেন, ‘সবার সাথে নামাজ আদায়ের পর জায়নামাজে বসে আমাদের আপা’; অদ্বিতীয়া তিনি; অনন্যা তিনি; ভালোবাসা’।

ছবিতে দেখা যায়, নামাজ শেষে প্রধানমন্ত্রী জায়নামাজে কয়েকজনের সঙ্গে বসে আলাপ করছেন।

ছবিটি পোস্টের পর ব্যাপক প্রশংসায় মেতেছেন নেটিজেনরা। নুরুল করিম নামে একজন তার কমেন্টে লিখেছেন, ‘আমাদের ভালোবাসার প্রধানমন্ত্রী, তিনি দীর্ঘজীবী হন।’

মাহাবুর রহমান মিলন নামে আরেকজন লিখেছেন, ‘অনেক শ্রদ্ধা, আপনি দীর্ঘজীবী হন।’ এ ছাড়াও ছবিটি এরইমধ্যে অনেকেই তাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করেছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শত ব্যস্ততার মধ্যেও ধর্মীয় নিয়ম-কানুন মেনে চলেন। তাহাজ্জুদ নামাজ থেকে শুরু করে তিনি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ সময় মতো আদায় করেন।

প্রধানমন্ত্রী তার দৈনন্দিন কর্মকাণ্ড শুরুর আগে সকালে নামাজ ও পবিত্র কোরআন তিলাওয়াত করেন। শুধু তাই নয়, সকালের চা তিনি নিজেই বানিয়ে খান।

এর আগে গত বছরের ২৮ অক্টোবর ছোট বোন শেখ রেহানাকে নিয়ে মাছ ধরার কয়েকটি ছবি নেটিজেনদের সঙ্গে শেয়ার করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
 

ছোট বোন শেখ রেহানাকে নিয়ে মাছ ধরছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: সংগৃহীত

ওই ছবিতে দেখা যায়, প্রধানমন্ত্রীর বরশিতে ধরা পড়ে মস্ত বড় একটি চিতল মাছ। সেই ছবি পোস্ট করার সঙ্গে সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। ছবিগুলো সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীদের মন জয় করে।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে প্রধানমন্ত্রীর ছুটির দিনের আনন্দময় মুহূর্তের তিনটি ছবি সংবলিত একটি পোস্টে বলা হয়, ‘রাষ্ট্রীয় ও দলীয় কাজের ব্যস্ততার মধ্যেও মাসের যেকোনো ছুটির দিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার পরিবারের জন্য অনেক আনন্দের।’

পোস্টটিতে আরও বলা হয়, ‘ছুটির দিনে বিশেষ করে ছোট বোন শেখ রেহানা তার পাশে থাকলে তো কথাই নেই, তাদের আনন্দের সীমা নেই। দুই বোন ছিপ নিয়ে বসে যান মাছ ধরতে। মাঝে মাঝে বড়োসড়ো মাছও ধরা পড়ে তাদের বড়শিতে। বাঙালি মানেই মাছে-ভাতে বেড়ে ওঠা এক জাতি। শুভকামনা বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যার জন্য।’

মাছ ধরার বড়শি এবং মাছের সঙ্গে দুই বোনের হাস্যোজ্জ্বল ছবিগুলো ২৯ অক্টোবর সকাল ৮টা পর্যন্ত প্রায় ৪২ হাজার রিঅ্যাকশন, ১ হাজার ৫০০ মন্তব্য এবং ১ হাজার ৯০০টিরও বেশি শেয়ার হয়।

এ ছাড়াও রাষ্ট্রীয় ও দলীয় কাজের শত ব্যস্ততার মাঝেও একটু সুযোগ পেলেই গণভবনে কৃষি কাজসহ বিভিন্ন ধরনের কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত থাকেন।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *