Skip to content

দ্বিতীয় দিনে জিকির-আসকারে মশগুল ইজতেমায় অংশগ্রহণকারীরা | বাংলাদেশ

দ্বিতীয় দিনে জিকির-আসকারে মশগুল ইজতেমায় অংশগ্রহণকারীরা | বাংলাদেশ

<![CDATA[

প্রথম পর্বের দ্বিতীয় দিনেও লাখো মুসল্লির পদচারণায় মুখর বিশ্ব ইজতেমা ময়দান। শনিবার (১৪ জানুয়ারি) সকাল থেকে বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে হেদায়েতি বয়ান আর জিকির-আসকারে মশগুল অংশগ্রহণকারীরা।

শীত আর কুয়াশাচ্ছন্ন আবহাওয়া ম্লান হয়েছে সৃষ্টিকর্তার ভালোবাসার কাছে। উদ্দেশ্য যখন আল্লাহর নৈকট্যলাভ তখন বাধ সাধেনি কোনো বৈরীতার কাছে। বেলা যত গড়িয়েছে মানুষের উপস্থিতি বেড়েছে চোখে পড়ার মতো।

দ্বিতীয় দিনের কার্যক্রম শুরু হয় ফজরের নামাজের পর। বয়ান রাখেন বিদেশি মেহমান মাওলানা খুরশিদ আলম। ইজতেমার মাঠ ছাড়িয়ে মানুষের সমাগম আশপাশের সড়ক-মহাসড়কেও ছড়িয়ে পড়ে। ইসলামের সুমহান বাণী নিজেদের অন্তরে গেঁথে নেয়ার জন্যই এখানে এসেছেন বলে জানালেন মুসল্লিরা।

ইজতেমা মাঠ ঘুরে দেখা যায়, বিশাল শামিয়ানার নিচে খিত্তা (নির্ধারিত জায়গা) অনুসারে অবস্থান করছেন সবাই। মাঠে পাটি, চট দিয়ে বিছানা পেতে বসে বয়ান শুনছেন তারা। ফজরের নামাজের পর শুরু হওয়া বয়ান শেষ হয় সকাল ১০টার দিকে। এরপর দ্বিতীয় বয়ান শুরু হয় জোহরের নামাজের পর।

এবারে প্রায় ৬৬ দেশের ৫ হাজারের মতো বিদেশি অতিথি অংশ নিচ্ছেন ইজতেমায়। তাবলীগ জামায়াতের আতিথেয়তা আর প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় মুগ্ধ তারা।

আরও পড়ুন: বিশ্ব ইজতেমা নিয়ে মসজিদের খুতবায় অপপ্রচার না করতে নির্দেশনা

এদিকে, ইজতেমার কার্যক্রম সুষ্ঠু আর নির্বিঘ্ন করতে কাজ করছে আইনশৃংখলা বাহিনীর প্রায় ১০ হাজার সদস্য। গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোল্যা নজরুল ইসলাম জানান, ইজতেমার নিরাপত্তায় নিয়োজিত আছে প্রায় সাড়ে সাত হাজার পুলিশ ও র‌্যাবসহ আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য। কয়েকটি স্তরের নিরাপত্তা চাদরে ঢেকে রাখা হয়েছে ইজতেমা ময়দান। কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা ও অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা যাতে ঘটতে না পারে, সে বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে নিরাপত্তাব্যবস্থা সাজানো হয়েছে।

পুলিশ ও র‌্যাবের কন্ট্রোল রুম থেকে নিরাপত্তার বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে এবং পর্যাপ্ত সংখ্যক ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরাও ব্যবহার করা হচ্ছে। নিরাপদ যাতায়াত ও সুষ্ঠুভাবে যানবাহন চলাচলের সুবিধার্থে প্রতিদিন ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলেও জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

রোববার (১৫ জানুয়ারি) আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে প্রথম পর্বের বৃহৎ এ গণজামায়েত৷ 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *