Skip to content

নাদিয়াকে চাপা দেয়া বাসচালক ও হেলপার রিমান্ডে | বাংলাদেশ

নাদিয়াকে চাপা দেয়া বাসচালক ও হেলপার রিমান্ডে | বাংলাদেশ

<![CDATA[

রাজধানীর প্রগতি সরণিতে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী নাদিয়া সুলতানাকে চাপা দেয়ার ঘটনায় করা মামলায় ভিক্টর ক্লাসিক পরিবহনের চালক মো. লিটন ও হেলপার মো. আবুল খায়েরকে দুইদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

সোমবার (২৩ জানুয়ারি) তাদেরকে আদালতে হাজির করে মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য সাতদিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। শুনানি শেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ মোস্তফা রেজা নুর তাদের দুদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে সোমবার সকাল ৮টা ২০ মিনিটের দিকে বাড্ডার আনন্দনগর এলাকায় সার্জেন্ট টাওয়ারের পেছন থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

রোববার (২২ জানুয়ারি) নাদিয়া তার এক বন্ধুর সঙ্গে মোটরসাইকেলে করে রাজধানীর প্রগতি সরণি এলাকায় বই কিনতে যাচ্ছিলেন। দুপুর ১২টা ৪৫ মিনিটের দিকে স্থানীয় একটি মার্কেটের সামনে পৌঁছালে পেছন দিক থেকে আসা ভিক্টর ক্লাসিক পরিবহনের একটি বাস মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়।

আরও পড়ুন: বাসচাপায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় ফের সহপাঠীদের বিক্ষোভ

এতে নাদিয়া মোটরসাইকেল থেকে রাস্তায় ছিটকে পড়ে। মুহূর্তেই বাসের সামনের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে মারা যান নাদিয়া। এছাড়া মোটরসাইকেল চালক অক্ষত ছিলেন। পরে নাদিয়ার মরদেহ ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে পুলিশ শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় নিরাপদ সড়ক আইনে থানায় একটি মামলা করেন তার বাবা জাহাঙ্গীর।

নাদিয়ার মৃত্যুর সংবাদ শোনার পর রোববার বিকেলের দিকে রাজধানীর বিমানবন্দর সড়ক এলাকার কাওলা ব্রিজের নিচে নর্দার্ন ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা রাস্তা অবরোধ কর্মসূচি পালন করেন। তাদের এ কর্মসূচির কারণে কয়েক ঘণ্টা বিমানবন্দর সড়ক এলাকায় যান চলাচল বন্ধ ছিল। তারা নাদিয়ার মৃত্যুর ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি করেন।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *