Skip to content

পরকীয়ায় তিন বন্ধু মিলে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ ও হত্যা | বাংলাদেশ

পরকীয়ায় তিন বন্ধু মিলে প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ ও হত্যা | বাংলাদেশ

<![CDATA[

পরকীয়ার ঘটনা জানাজানি হওয়ায় মাদারীপুরের শিবচরে সৌদি প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণ শেষে শ্বাসরোধে হত্যা করে তিন বন্ধু। গ্রেফতার দুইজনের প্রাথমিক স্বীকারোক্তিতে এ হত্যাকাণ্ডের রহস্যের জট খুলে।

 

রোববার (৫ মার্চ) দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার মাসুদ আলম।

এদিকে এ ঘটনায় এখনও পলাতক রয়েছেন বাবুল শিকদার। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।

পুলিশ সুপার আরও জানান, গত ০৩ মার্চ মাদারীপুরের শিবচরের উত্তর ইউনিয়নের ভেন্নাতলা এলাকার সৌদি প্রবাসী শাহ আলম ফকিরের স্ত্রী আকলিমা বেগমের (৩০) মুখ বাঁধা লাশ নিজ ঘর উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনার দিন নিহতের ভাই সুজন শিকদার বাদী হয়ে শিবচর থানায় অজ্ঞাতদের আসামি করে একটি মামলা করেন। শুরু হয় পুলিশের অনুসন্ধান। তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ঘটনার ১৮ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার হয় আতিয়ার কাজী (৫০), শহীদ মোল্লা (৪২)। পরকীয়ার ঘটনা জানাজানি হওয়ায় ধর্ষণ শেষে তিন বন্ধু মিলে শ্বাসরোধে হত্যা করে সৌদি প্রবাসীর স্ত্রীকে। পরে গা ঢাকা দেয় অভিযুক্ত তিনজনই।

আরও পড়ুন: তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় গ্রেফতার ৫

মাসুদ আলম সংবাদ সম্মেলনে জানান, সাত বছর আগে আতিকের সঙ্গে পরিচয় হয় আকলিমার। পরে শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন তারা। এরপর আতিকের অন্য বন্ধুদের সঙ্গে আকলিমার পরিচয়ের পরে শারীরিক সম্পর্ক হলে এলাকায় জানাজানি হয়। পরে সৌদি প্রবাসীর স্ত্রীকে মেরে ফেলার পরিকল্পনা করে তিন বন্ধু।

এদিকে গ্রেফতার হওয়া দুইজন ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেছে। এদিকে অভিযুক্ত তিনজনই ভ্যান চালক ও ভেন্নাতলা এলাকার বাসিন্দা। আর এখনও পলাতক অপর বন্ধু বাবুল শিকদার (৪৫)।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *