Skip to content

পরিস্থিতি ঘোলাটে করার ষড়যন্ত্র কঠোরভাবে দমন করা হবে | রাজনীতি

পরিস্থিতি ঘোলাটে করার ষড়যন্ত্র কঠোরভাবে দমন করা হবে | রাজনীতি

<![CDATA[

আওয়ামী লীগ নেতারা বলছেন, রাজনৈতিক কর্মসূচি পালনে কোনো বাধা নেই। বরং শান্তিপূর্ণ সামবেশে সহায়তা করবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী। তবে উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়ে পরিস্থিতি ঘোলাটে করার ষড়যন্ত্র কঠোরভাবে দমন করা হবে।

সংবিধান অনুযায়ী আগামী জাতীয় নির্বাচন হবে জানিয়ে ক্ষমতাসীনরা বলছেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা পুনরায় ফেরানোর কোনো পথ নেই। শনিবার (১৫ অক্টোবর) রাজধানীতে আলাদা আলাদা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন নেতারা।

এদিকে সভা-সমাবেশে ব্যস্ত বিএনপি। রাজধানী ছাড়িয়ে দেশের বাইরে বিভাগীয় সমাবেশ করছেন তারা। উদ্দেশ্য সরকার পতন আন্দোলন জোরদার করা। আর এ নিয়েই রাজনীতির মাঠ এখন অনেকটাই উত্তপ্ত। পাল্টাপাল্টি বক্তব্যে নিজেদের অবস্থান আর শক্তি প্রদর্শনের মহড়া চলছে বিরোধী ও ক্ষমতাসীন দুই দলের মধ্যেই। এর মধ্যে সরকার পতন আন্দোলনের অংশ হিসেবে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সমাবেশ করছে বিএনপি।

সকালে সচিবালয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, বিএনপি শান্তিপূর্ণভাবে সমাবেশ করলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী সহায়তা করবে।

আরও পড়ুন: ‘চট্টগ্রামে বিএনপির মহাসমাবেশে একাত্তরের রাজাকারের স্লোগান’ 

আর আগামী মাস থেকে প্রতিটি উপজেলা ও থানায় পাল্টা সমাবেশ ও মিছিল করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। সকালে চট্টগ্রামের সার্কিট হাউসে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। এ সময় চট্টগ্রামে পলোগ্রাউন্ড মাঠে বিএনপির যে সমাবেশ করেছে তাতে মাঠের এক তৃতীয়াংশ পূর্ণ হয় নাই। বিএনপি সমাবেশ ফ্লপ হয়েছে। জব্বারের বলী খেলায় এর থেকে বেশি মানুষ হয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

বিএনপি সংঘাতের পথে হাঁটলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তা প্রতিরোধেরও হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন তথ্যমন্ত্রী।

এদিকে বিকেলে রাজধানীতে সমাবেশের নামে কেউ বিশৃঙ্খলা করলে কোনো ছাড় দেয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতারা। বিএনপি নেতারা উসকানিমূলক বক্তব্য দিচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তারা।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের পল্টন থানা ও ১৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে দলের নেতারা বলেন, রাষ্ট্র পরিরচালনায় ব্যর্থ বলেই বিএনপিকে বারবার প্রত্যাখ্যান করেছে জনগণ।

আগামী জাতীয় নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী বর্তমান সরকারের অধীনেই হবে বলেও জানান আওয়ামী লীগ নেতারা।

এ সময় দরিদ্র ও ব্যর্থ রাষ্ট্রকে উন্নতির পথে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কথা জানিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম- সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, স্বাধীনতা বিরোধী বলেই বিএনপির উন্নয়ন ভালো লাগে না। বিএনপি কোনো দিন রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসতে পারবেন না। রাষ্ট্রকে ব্যর্থ করার কারণেই জনগণ তাদেরকে ক্ষমতার বাইরে রেখেছে।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *