Skip to content

পুলিশের বরখাস্ত পরিদর্শক সোহেল রানাকে সাজা দিয়েছে ভারত | বাংলাদেশ

পুলিশের বরখাস্ত পরিদর্শক সোহেল রানাকে সাজা দিয়েছে ভারত | বাংলাদেশ

<![CDATA[

ভারতে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে ঢাকার বনানী থানার বরখাস্ত পরিদর্শক সোহেল রানাকে সাজা দিয়েছে ভারতের একটি আদালত। পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স থেকে হাইকোর্টে দেয়া প্রতিবেদনে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

শনিবার (২১ জানুয়ারি) ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেলে একেএম আমিন উদ্দিন মানিক সংবাদমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আমিন উদ্দিন মানিক বলেন, পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স থেকে প্রতিবেদন এসেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে বনানী থানার পরিদর্শক ই-অরেঞ্জের সোহেল রানার সাজা হয়েছে ভারতে। তবে এই প্রতিবেদন এখনো এফিডেভিট করা হয়নি। এফিডেভিট করে হাইকোর্টে দাখিল করা হবে।

এর আগে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ই-অরেঞ্জ, অরেঞ্জ বাংলাদেশ ও রেড অরেঞ্জের প্রতারণার বিষয়ে বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ) হাইকোর্টে রিপোর্ট দেয়। তবে গত বছরের ৩ নভেম্বর তাকে দায়সারা বলে মন্তব্য করেন হাইকোর্ট।

ওই সময় অসন্তোষ প্রকাশ করে ৩০ দিনের মধ্যে আবারও যথাযথভাবে প্রতিবেদনের দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়। একই সঙ্গে ই-অরেঞ্জের প্রতিষ্ঠাতা সোনিয়া মেহজাবীনের ভাই বরখাস্ত পুলিশ কর্মকর্তা শেখ সোহেল রানাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দেন আদালত। ওই সময় পৃথক প্রতিবেদন দেয় দুদক এবং পুলিশ।

আরও পড়ুন: ব্যাংক, আর্থিকখাত নিয়ে ‘গুজব’: ৪ ব্যাংক কর্মকর্তা গ্রেফতার

২০২১ সালের ১৭ আগস্ট অগ্রিম অর্থ পরিশোধের পরও মাসের পর মাস পণ্য না পাওয়ায় ই-অরেঞ্জের বিরুদ্ধে মামলা করেন প্রতারণার শিকার গ্রাহক মো. তাহেরুল ইসলাম। ওই সময় তার সঙ্গে প্রতারণার শিকার আরও ৩৭ জন উপস্থিত ছিলেন। গ্রাহকের ১ হাজার ১০০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ওই মামলা হয়।

আসামিরা হলেন, ই-অরেঞ্জের মালিক সোনিয়া মেহজাবিন, তার স্বামী মাসুকুর রহমান, আমানউল্ল্যাহ, বিথী আক্তার, কাউসার আহমেদ এবং পুলিশের বনানী থানার পরিদর্শক সোহেল রানা।

শুরু থেকেই ই-অরেঞ্জের সঙ্গে নিজের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ অস্বীকার করে আসছিলেন সোহেল রানা। তবে ই-অরেঞ্জ বাংলাদেশ নামে প্রতিষ্ঠান খুলতে নেয়া টিআইএন সনদে পরিচালক হিসেবে সোহেল রানার নাম দেখা যায়। প্রতিষ্ঠানটি থেকে বিভিন্ন সময়ে আড়াই কোটি টাকা তুলে নেওয়ার অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সোহেল রানা অপরাধমূলক একাধিক কাজে নিজের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ স্বীকার করেছেন বলে জানান বিএসএফের কর্মকর্তারা। ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যম জানায়, সম্ভবত গা ঢাকা দেয়ার লক্ষ্যে ভারতে প্রবেশ করেছিলেন সোহেল রানা।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *