Skip to content

প্রতিবাদে ফুঁসছেন ম্যানইউ সমর্থকেরা | খেলা

প্রতিবাদে ফুঁসছেন ম্যানইউ সমর্থকেরা | খেলা

<![CDATA[

ক্লাব বিক্রির ঘোষণা দেবার ৮ মাস পরেও নতুন মালিক খুঁজে না পাওয়ায় গ্লেজার পরিবারের বিরুদ্ধে আবারও প্রতিবাদে নেমেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড সমর্থকরা। মঙ্গলবার ক্লাবটির মেগাস্টোরের প্রধান ফটক আটকে দেয় তারা। ফলে বন্ধ হয়ে যায় রেড ডেভিলদের নতুন মৌসুমের জার্সি বিক্রির কার্যক্রম। দ্য নাইন্টিন ফিফটি এইট নামে একটি সমর্থকগোষ্ঠী এই প্রতিবাদ কর্মসূচির আয়োজন করে।

সোনালী অতীত অনেকটাই পেছনে ফেলে এসেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন চলে যাওয়ার পরে ক্লাবটির মৌসুম প্রতি ব্যর্থতা অনেকটাই অভ্যস্ত করে ফেলেছে সমর্থকদের।

 

আরও পড়ুন: স্ত্রীকে মার্শাল আর্টে যেতে দেননি লেভানডোভস্কি

২০০৫ সালে ক্লাবটির মালিকানা কিনে নেয় গ্লেজার পরিবার। শুরুটা ঠিকঠাক হলেও সময়ের পরিক্রমায় সমর্থকদের সঙ্গে দূরত্ব বাড়তে থাকে মালিকপক্ষের। মূলত ইউরোপিয়ান ফুটবলে নিজেদের প্রভাব ধরে রাখতে না পারাতেই যত ক্ষোভ রেড ডেভিল ফ্যানদের।

বছরের পর বছর ধরে সমর্থকদের চলতে থাকা সে প্রতিবাদ কর্মসূচীতে অবশ্য মালিকপক্ষ অতটা গুরুত্ব দেয়নি। এমনকি তাদের দাবি-দাওয়া বাস্তবায়নে উল্ল্যেখযোগ্য কোনো পদক্ষেপ নেয়ারও নজির নেই গ্লেজার পরিবারের।

তবে করোনা পরবর্তী সময়ে বৈশ্বিক অর্থনীতির ভঙ্গুর অবস্থা আর ক্লাবটির চলতে থাকা ব্যর্থতায় টনক নড়ে মালিকপক্ষের। গত নভেম্বরে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্লাব বিক্রির ঘোষণা দেয় তারা। এরপর এপ্রিল মাস পর্যন্ত ছিল ক্লাব কেনায় আগ্রহীদের আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব গ্রহণের সময়সীমা।

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কেনার দৌড়ে অনেকটাই এগিয়ে শেখ জসিম আর স্যার জিম র‌্যাটক্লিফ। এপ্রিলের মধ্যে এই দুই ধনকুবের নিজেদের আনুষ্ঠানিক প্রস্তাবও পেশ করেছে। তবে এরপর মাস তিনেক শেষ হওয়ার পথে থাকলেও কোনো অগ্রগতি নেই মালিকানা হস্তান্তরের।

মূলত এই মালিকানা হস্তান্তর প্রক্রিয়ায় বিলম্বের কারণেই চটেছেন ক্লাব সমর্থকরা। ব্যানার-ফেস্টুন আর গ্লেজার পরিবারের প্রতি ক্ষোভ সম্বলিত প্ল্যাকার্ড নিয়ে বন্ধ করে দেয়া হয় ক্লাব মেগাস্টোরের প্রধান ফটক। তাতে ক্লাবের জার্সি বিক্রির কার্যক্রম বন্ধ থাকে অনেকক্ষণ। 

রিচার্ড হুকভেল নামের এক প্রতিবাদকারী বলেন, ‘গ্লেজার কেবল এই ক্লাব থেকে টাকা আয়ের চিন্তা করে। আজ তারা মৌসুমের নতুন জার্সি বিক্রি করা শুরু করেছে। যা বিক্রি করে তারা মিলিয়ন মিলিয়ন পাউন্ড কামাবে। তাদের এই অর্থের প্রতি অন্ধ হয়ে যাওয়ার বিরুদ্ধেই প্রতিবাদ করছি আমরা। কারণ এইসব টাকা তারা ক্লাবের উন্নতির পেছনে ব্যয় করে না।’

এই প্রতিবাদকারী আরও বলেন, ‘১৮ বছর হলো তারা এই ক্লাব কিনেছে এবং এখন পর্যন্ত এই ক্লাবকে কিছুই দিতে পারেনি। তাই আজ আমরা এখানে এসেছি। জার্সি বিক্রি বন্ধ করো বা চালিয়ে যা, তোমরা ক্লাব না ছাড়া পর্যন্ত আমরা যাচ্ছি না।’

 

আরও পড়ুন: মেসির কি মনে পড়ে সাত বছর আগের সেই দিন?

সবশেষ মৌসুমটা অবশ্য খুব বেশি খারাপ কাটেনি রেড ডেভিলদের। কারাবাও কাপ জেতার পাশাপাশি পরের মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জায়গা নিশ্চিত করেছে এরিক টেন হ্যাগের দল। ক’দিন বাদেই প্রাক মৌসুম শুরু করবে ইংলিশ ক্লাবটি।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *