Skip to content

ফাইনালে আর্জেন্টিনার হার চেয়েছিলেন তেভেজ! | খেলা

ফাইনালে আর্জেন্টিনার হার চেয়েছিলেন তেভেজ! | খেলা

<![CDATA[

৩৬ বছর পর আর্জেন্টিনাকে বিশ্বকাপ জিতিয়েছেন লিওনেল মেসি। শিরোপার জন্য দেশটির হাহাকার দূর করে গোটা দেশের প্রশংসায় সিক্ত হয়েছেন সাতবারের ব্যালন ডি’অরজয়ী তারকা। সাবেক থেকে বর্তমান ফুটবলারদের অভিনন্দনে সিক্ত হচ্ছেন ক্ষুদে জাদুকর। কিন্তু আর্জেন্টিনা দলে তার সাবেক সতীর্থ কার্লোস তেভেজ এখনও অভিনন্দন জানাননি মেসিকে। উদযাপন করেননি আলবিসেলেস্তেদের বিশ্বকাপ জয়। এমনকি ফাইনালে আর্জেন্টিনার হার চেয়েছিলেন তিনি।

আর্জেন্টিনা-ফ্রান্স ফাইনালে কোন আর্জেন্টাইনই হয়ত চাননি ফ্রান্সের কাছে হেরে যাক তার দল। ‘হয়ত’ বলতে হচ্ছে কারণ অন্তত একজন আর্জেন্টাইন ফাইনালে ফ্রান্সের পক্ষে ছিলেন। চেয়েছিলেন কিলিয়ান এমবাপ্পে- হুগু লরিসরা টানা দ্বিতীয়বারের মতো শিরোপা উচিয়ে ধরুক। আরও বিস্ময়কর ব্যাপার, সেই লোকটি আর কেউ নয়, স্বয়ং আর্জেন্টিনা দলে মেসির এক সময়ের সতীর্থ কার্লোস তেভেজ। আর্জেন্টিনার এক সময়ের জনপ্রিয়তম ফুটবলারটাই চেয়েছিলেন তার দেশকে হারিয়ে কাপ জিতুক আর্জেন্টিনা। বুয়েনস এইরেসভিত্তিক রেডিও স্টেশন ‘রাদিও মিতার’ কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন তেভেজ।

 

গত বছর বোকা জুনিয়র্সের হয়ে খেলোয়াড়ি জীবনের ইতি ঘটিয়ে কোচিংয়ে নাম লেখান তেভেজ। কাতার বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো খুব একটা মনোযোগ দিয়ে না দেখলেও ফ্রান্সের খেলা তার ভালো লেগেছে বলে জানিয়েছেন ৩৮ বছর বয়সী সাবেক উইঙ্গার। তিনি বলেন, ‘আমি কাতার বিশ্বকাপ মনোযোগ দিয়ে দেখিনি। তবে ফ্রান্সের ম্যাচগুলো মিস করিনি। ওদের খেলা খুব ভালো লেগেছে।’

আরও পড়ুন:চ্যাম্পিয়ন অব দ্য ওয়ার্ল্ড পুরস্কার পেলেন মেসি

শুধু তাই-ই নয়, ফোন নম্বর থাকা স্বত্বেও বিশ্বকাপ জয়ের পর ২০দিন পেরিয়ে গেলেও এখনো সাবেক সতীর্থ মেসিকে অভিনন্দন জানাননি বলে জানিয়েছেন আর্জেন্টিনার হয়ে দুটি বিশ্বকাপ খেলা তেভেজ। তিনি বলেন, ‘ওকে ফোন দিলেও হয়তো পেতাম না। ভীষণ ব্যস্ত ছিল, ফোন অভিনন্দন বার্তায় ভরে গিয়েছিল। তবে আমার সন্তানেরা আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয় আর মেসির প্রতিটি গোল উদ্‌যাপন করেছে।’
 

আর্জেন্টিনার জার্সিতে তরুণ প্রতিভা হিসেবে মেসির আগে ‘নতুন ম্যারাডোনা’ হিসেবে আলোড়ন তুলেছিলেন তেভেজ। এমনকি মেসির ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে আর্জেন্টিনার সবচেয়ে বড় তারকা হিসেবে তাকেই ধরা হতো। দেশটিতে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে ছিলেন তিনি। ২০০৪ সালে অভিষেকের পর আর্জেন্টিনার জার্সিতে ৭৬ ম্যাচে ১৩ গোল করা এল অ্যাপাচি ২০১৫ সালের পর আর সুযোগ পাননি আকশি-সাদা জার্সি গায়ে চড়ানোর। মেসির সঙ্গে একত্রে ৫০টি ম্যাচ খেলা তারকার এক সময় দূরত্ব তৈরি হয়। পাদপ্রদীপের আলোয় মেসি থাকলেও সময়ের সঙ্গে অনেকটাই বিস্মৃত তেভেজ।

দূরত্ব বাড়লেও বিশ্বকাপ জেতায় মেসিকে অভিনন্দন জানাবেন বলে জানিয়েছেন তেভেজ। তিনি বলেন, ‘ওর সঙ্গে আমার শিগগিরই দেখা হবে। ওর সঙ্গে আলিঙ্গন করে অভিনন্দন জানাব।’

আরও পড়ুন:ফ্রান্সে বিশ্বকাপ উদ্‌যাপন নিয়ে দ্বিধায় মেসি

বোকা জুনিয়র্সের হয়ে ক্যারিয়ারের ইতি টানার আগে ক্লাব ক্যারিয়ারে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, ম্যানচেস্টার সিটি, য়্যুভেন্তাসের মতো ক্লাবের হয়ে খেলে ১৩টি শিরোপা জিতেছেন তেভেজ। আর্জেন্টিনার হয়ে আছে অলিম্পিক স্বর্ণ। ২০০৪ এথেন্স অলিম্পিকে জিতেছিলেন গোল্ডেন বুট। ক্যারিয়ার শেষ করেই মেসির শহরের ক্লাব রোসারিও সেন্ট্রালের কোচের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। তবে পাঁচমাস পরেই পদত্যাগ করেন।

তেভেজ জানান, এরপর আরেক আর্জেন্টাইন ক্লাব ইন্দিপেন্দিয়েন্তের কোচ হওয়ার প্রস্তাব পেলেও আপাতত পরিবারকেই সময় দিতে চান তিনি।

তিনি বলেন, ‘কোচিংয়ের অভিজ্ঞতা দারুণ ছিল। মানুষের ভালোবাসা পেয়েছি। তবে এখন আমি জীবনটাকে উপভোগ করছি। আমার একটা খামার আছে। সেখানে পরিবারের সঙ্গে দারুণ সময় কাটছে।’

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *