Skip to content

বাখমুত দখলে আরও এগিয়ে গেল রুশ বাহিনী | আন্তর্জাতিক

বাখমুত দখলে আরও এগিয়ে গেল রুশ বাহিনী | আন্তর্জাতিক

<![CDATA[

ইউক্রেনের কৌশলগত গুরুত্বপূর্ণ শহর বাখমুতের কাছে পূর্ব ইউক্রেনীয় গ্রামের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার দাবি করেছে রাশিয়ার সেনাবাহিনী। শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাতে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানায়, রুশ বাহিনী উক্রেনের দোনেৎস্ক অঞ্চলের ক্লিশচিভকা নামের একটি গ্রাম দখল করেছে।

আল জাজিরা জানায়, যুদ্ধের আগে এই গ্রামের জনসংখ্যা ছিল ৪শ’। গত কয়েক মাস ধরে এই গ্রামে রুশ বাহিনীর সাথে ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর যুদ্ধ চলছে। তবে রাশিয়ার দাবি বিষয়ে ইউক্রেনের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। আল জাজিরা জানায়, গ্রামটি বাখমুত থেকে মাত্র ৯ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থিত।

 

এদিকে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় আরও জানায়, তাদের বাহিনী দক্ষিণ ইউক্রেনের জাপোরিজিয়া অঞ্চলের লবকোভ গ্রামের নিয়ন্ত্রণও নিয়েছে।

 

এদিকে আন্তর্জাতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, এই গ্রাম দখলের মধ্যে দিয়ে বাখমুত দখলে আরও এগিয়ে গেল রুশ বাহিনী। বাখমুত কৌশলগতভাবে খুবই গুরুত্বপূর্ণ শহর। রুশ বাহিনী এবং রাশিয়ার ভাড়াটে যোদ্ধা গোষ্ঠি ওয়াগনার গ্রুপ বাখমুতকে ইউক্রেনীয় সৈন্যদের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে অবতীর্ন হয়েছে।  

 

আরও পড়ুন: যতক্ষণ প্রয়োজন ইউক্রেনকে সহায়তা দিয়ে যাবে যুক্তরাষ্ট্র: লয়েড অস্টিন

 

এর আগে ১৩ জানুয়ারি দীর্ঘ লড়াইয়ের পর ইউক্রেনের লবণ খনির শহর হিসেবে পরিচিত সোলেদারের পূর্ণাঙ্গ দখল নেয়ার দাবি করে রাশিয়ার সামরিক বাহিনী।

 

বিবিসি জানায়, ইউক্রেন এবং রাশিয়ার যুদ্ধ শুরুর পর সোলেদার দখলের লড়াই ছিল সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী। মাত্র ১০ হাজার নাগরিকের এই শহরটি তুলনামূলক ভাবে ছোট হলেও এর কৌশলগত তাৎপর্য আছে।

 

পশ্চিমা এবং ইউক্রেনীয় কর্মকর্তারা বলেছেন সোলেদার এবং বাখমুতের বেশিরভাগ লড়াই রাশিয়ার কুখ্যাত ওয়াগনার ভাড়াটে গোষ্ঠী সদস্যরা পরিচালনা করছে।  
 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *