Skip to content

বিপিএলকে হ-য-ব-র-ল বললেন মাশরাফী | খেলা

বিপিএলকে হ-য-ব-র-ল বললেন মাশরাফী | খেলা

<![CDATA[

একদিন পরই শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) নবম আসর। খেলা মাঠে গড়ানোর আগে টুর্নামেন্টটি নিয়ে সমালোচনার পারদ চড়েছে। বিপিএলের মান ও অন্যান্য প্রসঙ্গে একদিন আগেই বিস্ফোরক মন্তব্য করেছিলেন টাইগার ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। এবার বিপিএলকে হ-য-ব-র-ল আখ্যা দিলেন জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার ও সিলেট অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।

বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) মিরপুরে সিলেট স্ট্রাইকার্সের হয়ে অনুশীলন করেন মাশরাফী। পরে গণমাধ্যমে কথা বলতে এসে বিপিএল এবং ক্রিকেটের হালচাল নিয়ে মুখ খুলেন তিনি।

একদিন আগেই বিপিএল প্রসঙ্গে সাকিব বলেছিলেন, ‘আমাকে যদি সিইওর দায়িত্ব দেয়া হয়, আমার বেশিদিন লাগবে না। সর্বোচ্চ ১ থেকে ২ মাস সময় লাগবে সব ঠিক করতে। ২ মাস লাগারও কথা না। বিপিএলের সিইও হলে সব বাদ দিয়ে নতুন করে ড্রাফট অকশন হবে, ফ্রি টাইমে বিপিএল হবে, আধুনিক প্রযুক্তি থাকবে, সম্প্রচারের মান ভালো থাকবে, হোম ও অ্যাওয়ে ভেন্যুতে খেলা হবে।’

সাকিবের মন্তব্যের সঙ্গে একমত নড়াইল এক্সপ্রেসও। মাশরাফী বলেন, ‘আমি সাকিবের সঙ্গে একমত। সাকিব যে ইচ্ছার কথা বলেছে, সেই ইচ্ছার সঙ্গে আমি একমত। আর সীমাবদ্ধতার জায়গায় ক্রিকেট বোর্ড যদি সমতা আনতে পারে তাহলে পুরো টুর্নামেন্টের চেহারাটাই পাল্টে যাবে। ফ্রাঞ্চাইজিগুলো যেন টিকে থাকতে পারে সে বিষয়ে বোর্ডকেই কাজ করতে হবে।’

বিপিএলকে যা-তা বলেছিলেন সাকিব। আর ম্যাশের মতে বিপিএলের অবস্থা হ-য-ব-র-ল। তিনি বলেন, ‘পরিবেশ দেখলে আপনার তা-ই মনে হবে। কারণ এক মাঠে ৬-৭ দল অনুশীলন করছে। রংপুর যেমন তাদের নিজ দায়িত্বে নিজেদের মাঠে অনুশীলন করছে। এ বিষয়গুলো কিন্তু ম্যাটার করে। আয়োজন সঠিকভাবে করতে হবে।’

মাশরাফী  বলেন, ‘একই মাঠে এতগুলো দল প্রাকটিস করছে। এ বিষয়ে শুরু থেকে সমন্বয় করতে হবে। খালি চোখে যে কেউ দেখলেই বলবে এটা একটা হ-য-ব-র-ল অবস্থা।’

আরও পড়ুন: ট্রফি উন্মোচনে অধিনায়করা, সাকিব কোথায়?

তিনি বলেন,  ‘ছোট ছোট সমস্যাগুলো এক সময়ে বড় আকার ধারণ করে। কিন্তু এখন থেকেই যদি ক্রিকেট বোর্ড চিন্তা করে, তাহলে এগুলো ঠিক করা সম্ভব। আর এমন নয় যে আমাদের ব্যবস্থা নেই, অনেকগুলো মাঠ পড়ে আছে। চাইলেই সেগুলো কাজে লাগানো সম্ভব।’

ক্ষোভ জানিয়ে ম্যাশ বলেন, ‘আমাদের দুর্ভাগ্য আমরা পিছিয়ে আছি। কিন্তু অন্য দেশে এই সকল টুর্নামেন্ট অনেক এগিয়ে গেছে। তাদের মিডিয়াতে এগুলো প্রচার করছে, উন্নতি হচ্ছে। সেই জায়গা থেকে আমরা এগোতে পারছি না। এটি ঠিক যে, আমাদের কিছু প্রতিবন্ধকতা রয়েছে।’

ভবিষ্যৎ ক্রিকেট নিয়ে তিনি বলেন, ‘জাতীয় দলের বাইরে আমাদের আর কোনো দল নেই। জাতীয় দলকে তৈরি করার জন্য যা করা দরকার সেটা হচ্ছে না। ঘুরে ফিরে মুশফিক, তামিম, সাকিবেই আমরা সীমাবদ্ধ থেকে যাই। নতুনদের নিয়ে ভাবতে হবে। কিন্তু আমাদের সংস্কৃতিটাই অন্যরকম হয়ে গেছে। আর শুধু বিপিএল নয়, অন্য বিষয় নিয়েও ভাবতে হবে। অথচ ভারত কিংবা অস্ট্রেলিয়া দেখুন, ওরা ‘এইচ’ গ্রুপ, ‘এইচপি’ বা ‘এ দল’ নিয়ে ওরা ভাবে ও কাজ করে।’

আরও পড়ুন: তাসকিনদের ঢাকার নেতৃত্বে নাসির

তিনি বলেন, ‘এ বিষয়গুলো নিয়ে কথা হচ্ছে। কিন্তু টুর্নামেন্ট শুরু হলে পিছনের কথা সকলে ভুলে যায়। তখন মাঠের খেলাটাই সামনে থাকে। পিছনে যত সমস্যা থাকে সেগুলো নিয়ে আর কথা হয় না। ফলে সমস্যাগুলো শেষ পর্যন্ত থেকেই যায়।’

বিপিএলের ভবিষ্যৎ নিয়ে সাবেক এ অধিনায়ক বলেন, ‘এখন তো মোটামুটি দলগুলো তিন বছরের জন্য চূড়ান্ত। আগে থেকে বসে নিজেদের মধ্যে কথা বললে সবকিছু সমাধান করা সম্ভব। দলগুলো কী চাচ্ছে, বিসিবি কী চাচ্ছে এগুলো কথা বলেই সমাধান করা সম্ভব। না হলে সেই পূর্বের অবস্থাই থেকে যাবে। আজ সাকিব কথা বলছে, আমি বলছে—এগুলোতে কোনো লাভ হবে না।’

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *