Skip to content

বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান, প্রেমিকাকে বেধড়ক মারধর | আন্তর্জাতিক

বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান, প্রেমিকাকে বেধড়ক মারধর | আন্তর্জাতিক

<![CDATA[

প্রেমিকের দেয়ার বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় বেধড়ক মারধরের শিকার হয়েছেন এক তরুণী। গত বুধবার (২১ ডিসেম্বর) ভারতের মধ্যপ্রদেশে এ ঘটনা ঘটেছে। মারধরের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরালও হয়েছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

সাধারণত দেখা যায় প্রেমিকাই প্রেমিককে বিয়ের জন্য চাপাচাপি করে কিন্তু ভারতের মধ্যপ্রদেশে ঘটল উল্টো ঘটনা। রাজ্যের রেওয়া জেলার মৌগঞ্জ এলাকায় এক ২৪ বছরের এক যুবক তার প্রেমিকাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। কিন্তু প্রেমিকা প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন। 

ঘটনা সেখানেই থেমে যেতে পারত। কিন্তু এরপর যা ঘটল তা রীতিমতো অবিশ্বাস্য। কারণ, প্রস্তাব প্রত্যাখান করার পরপরই ২৪ বছর বয়সী পঙ্কজ ত্রিপাঠী তার ১৯ বছর বয়সী প্রেমিকাকে বেধড়ক মারধর শুরু করেন।

আরও পড়ুন: ‘বিয়ের জন্য পাত্রী চাই’ দাবিতে তরুণদের মিছিল!

ভাইরাল হওয়া ভিডিও থেকে দেখা যায়, ওই যুগল একে অপরের হাত ধরে হাঁটছেন। কিছু সময় পর পঙ্কজ ওই তরুণীকে থাপ্পড় মারেন। এরপর চুলের মুঠি ধরে বারবার থাপ্পড় মারতে থাকেন। মারের এক পর্যায়ে ওই তরুণী মাটিতে পড়ে যান। তারপর অনিল নির্দয়ভাবে তার মুখ ও সারা শরীরে লাথি মারতে থাকেন। মারের চোটে ওই তরুণী অজ্ঞান হয়ে গেলে পঙ্কজ তাকে তার দাঁড় করাতে চেষ্টা করে এবং পুরো ঘটনা ভিডিওকারী তার বন্ধু অনিল শংকরকে ভিডিও ডিলিট করার নির্দেশ দেয়।

পুলিশ জানিয়েছে, এই অবস্থায় ভুক্তভুগী তরুণীকে অজ্ঞান অবস্থায় ফেলে রেখে চলে যায় পঙ্কজ ত্রিপাঠী এবং তার বন্ধু অনিল শংকর। পুলিশ ভিন্নি ধারায় তাদের দুজনের নামে দুটি মামলা দায়ের করেছে। এরই মধ্যে অনিল এবং পঙ্কজকে গ্রেফতার করেছে। 

পুলিশ আরও জানিয়েছে, পঙ্কজ ওই তরুণীকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে ওই তরুণী জানায় তার পরিবার রাজি না, তাই সে পঙ্কজকে বিয়ে করতে পারবে। এতে পঙ্কজ ক্ষিপ্ত হয়ে ওই তরুণীকে মারধর শুরু করে। 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *