Skip to content

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাস্তবসম্মত ও গঠনমূলক স্থিতিশীল সম্পর্ক তৈরিতে চীনের আশ্বাস | আন্তর্জাতিক

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাস্তবসম্মত ও গঠনমূলক স্থিতিশীল সম্পর্ক তৈরিতে চীনের আশ্বাস | আন্তর্জাতিক

<![CDATA[

চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শিন গ্যাং এবং মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনের মধ্যে অকপট, বাস্তবসম্মত ও গঠনমূলক আলোচনা হয়েছে। চীন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে গঠনমূলক, বাস্তবসম্মত এবং স্থিতিশীল সম্পর্ক গঠন করতে চায়। রোববার (১৮ জুন) মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর এক বিবৃতিতে বিষয়টি জানিয়েছে।

বিগত পাঁচ বছরের মধ্যে এই প্রথম চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠিত হলো। বিশ্লেষকরা ধারণা করছেন, শীর্ষ কূটনীতিক পর্যায়ের এই বৈঠক দুই পরাশক্তির মধ্যে বিদ্যমান উত্তেজনা হ্রাসের পথ খুলে দেবে।

 

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার বলেছেন, ‘আমাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী যেকোনো বিষয়ে ভুল ধারণা এবং ভুল বোঝাবুঝির ঝুঁকি কমাতে উভয়পক্ষের মধ্যে সবসময় কূটনীতি এবং অন্যান্য সব ধরনের যোগাযোগের মাধ্যম খোলা রাখার বিষয়ে গুরুত্ব আরোপ করেছেন।’  

 

বৈঠকে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শিন গ্যাং বলেছেন, চীন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে গঠনমূলক, বাস্তবসম্মত এবং স্থিতিশীল সম্পর্ক গঠন করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। পাশাপাশি তিনি চীনের মৌলিক ইস্যু যেমন তাইওয়ান নিয়ে অবস্থান পরিষ্কার করেছেন। তিনি বলেছেন, এটি যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের মধ্যে সম্পর্ক খারাপ হওয়ার সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ঝুঁকি। 

 

আরও পড়ুন: চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ব্লিঙ্কেনের বৈঠক, অগ্রগতির আশা কম

 

দুই দেশের শীর্ষ কূটনীতিকদের মধ্যে আলোচনা শুরুর আগে মার্কিন কর্মকর্তাদের ধারণা ছিল, এই আলোচনা থেকে খুব বেশি কিছু বের হয়ে আসবে না। বিশেষ করে, তাইওয়ান ইস্যু, চীনের সেমিকন্ডাক্টর শিল্পে যুক্তরাষ্ট্রের বাগড়া, দুই দেশের বাণিজ্য ইত্যাদি নিয়ে হয়তো কোনো কথাই হবে না। কিন্তু এসব বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

 

এ বিষয়ে ম্যাথিউ মিলার বলেছেন, ‘আমাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিভিন্ন ইস্যু তুলে ধরেছেন এবং যেসব ক্ষেত্রে দুই দেশের স্বার্থ এক বিন্দুতে মিলে যায় সেসব বিষয়ে সহযোগিতা নিশ্চিতের সুযোগ বা উপায় নিয়েও কথা বলেছেন।’  

 

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র আরও জানান, অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন শিন গ্যাংকে ওয়াশিংটন ডিসিতে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন দুই দেশের মধ্যে আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে। এ ছাড়া তারা এরপর নিয়মিত বিরতিতে সুবিধাজনক সময়ে বারবার পরস্পরের দেশ ভ্রমণের বিষয়ে সম্মত হয়েছেন।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *