Skip to content

যে ভঙ্গিতে ঘুমালে অকালে বৃদ্ধ দেখাবে | লাইফস্টাইল

যে ভঙ্গিতে ঘুমালে অকালে বৃদ্ধ দেখাবে | লাইফস্টাইল

<![CDATA[

সুস্বাস্থ্য পেতে হলে প্রতিদিন সাত থেকে আট ঘণ্টা টানা ঘুমাতে হবে। স্বাস্থ্যকে সুখের চাবিকাঠি করতে হলে ঘুমের কোনো বিকল্প নেই। তবে ঘুমের ভঙ্গির সঙ্গে রয়েছে ত্বকের সম্পর্কও।

বিশেষজ্ঞরা জানান, রাতে ঘুমানোর ভঙ্গির সঙ্গে ত্বকের সুস্থতার সম্পর্ক জড়িত। ঘুমনোর ভঙ্গি ঠিক না হলে ত্বকের গ্রন্থিগুলি ঠিক মতো অক্সিজ়েন পায় না। রাতে ঠিক ভঙ্গিতে না ঘুমালে কম বয়সে ত্বক কুঁচকে যাওয়া, ত্বকে বয়সের ছাপ পড়া, মুখে অত্যধিক ব্রণ হওয়াসহ ত্বকের নানা সমস্যা বাড়বে।

কোন ভঙ্গিতে রাতে ঘুমাচ্ছেন তা ঠিক কি না জেনে নিন।

আরও পড়ুন: সারাক্ষণ ক্লান্তি আর ঘুম ঘুম ভাব, ভয়ংকর কিছু নয় তো?

বালিশ জড়িয়ে ঘুমোনো:
বালিশে জড়িয়ে ঘুমাতে অনেকেই অভ্যস্ত। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এর ফলে ত্বকে দাগ ও চুলকানির সমস্যা হতে পারে। কারন বালিশে অনেক সময় ব্যাক্টেরিয়া থাকে। তাই একটি পরিষ্কার বালিশের কভার পরিয়ে ঘুমাতে পারেন। না হলে রাতে কোনও ক্রিম মেখে ঘুালে সেটি বালিশে লেগে ত্বকের নানা সমস্যা হতে পারে।

আরও পড়ুন: আলো জ্বালিয়ে ঘুমালে শরীরের জন্য মারাত্মক ৪ ক্ষতি

উপুড় হয়ে ঘুমানো:
অনেকেই উপুড় হয়ে ঘুমাতে স্বচ্ছন্দবোধ করেন। তবে ত্বকের স্বাস্থ্যের জন্য এই ভঙ্গি মোটেই ভাল নয়। বালিশে মুখ গুঁজে শোয়ার ফলে মুখের ত্বকেও অক্সিজ়েন পৌঁছাতে পারে না। এতে রক্তসঞ্চালনের মাত্রাও ঠিক থাকে না। ফলে চোখের নীচে ফোলা ভাব, ত্বকের গ্রন্থি বন্ধ হয়ে যাওয়াসহ একাধিক সমস্যা হতে পারে।

পাশ ফিরে ঘুমানো:
ত্বক ভাল রাখতে এই ভঙ্গিতে শুতে পারেন। এতে ত্বকের ক্ষতি কম হয়। ঘুমানোর আগে ত্বকে কোনও ক্রিম মাখলে সেটি বালিশে লেগে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাই এক পাশে খুব বেশি চাপ দিয়ে ঘুমালে মুখের এক পাশের বলিরেখা ও ত্বক কুঁচকে যাওয়ার মতো সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

আরও পড়ুন: ভালো ঘুম চাইলে যে পাঁচটি কাজ অবশ্যই করবেন

চিৎ হয়ে ঘুমানো:
এটাই ঘুমনোর সবচেয়ে ভাল ভঙ্গি। বিছানায় পিঠ দিয়ে ঘুমানোর ফলে ত্বকের সব গ্রন্থি ভালভাবে অক্সিজেন পায়। রক্তসঞ্চালনও ঠিক মতো হয়। এই ভাবে ঘুমোলে ত্বকে দাগছোপ পড়ে না। বালিশের তেল বা অন্যান্য ময়লাও ত্বকে লাগে না। ত্বকে চুলকানির ঝুঁকিও কম হয়।

তাই বিশেষজ্ঞরা এ ভঙ্গিতে ঘুমানোর পরামর্শ দিয়েছেন। ত্বকের যেকোনো সমস্যায় বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের কাছে যাওয়ার পরামর্শও দেন তারা। 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *