Skip to content

শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে চমক দেখাল নামিবিয়া | খেলা

শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে চমক দেখাল নামিবিয়া | খেলা

<![CDATA[

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে নেমেই চমক দেখাল নামিবিয়া। টসে হেরে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে নির্ধারিত ওভারে ১৬৩ রান সংগ্রহ করে আফ্রিকা মহাদেশের দেশটি। জবাবে লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১০৮ রানেই গুটিয়ে যায় শানাকার দল। ফলে গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচেই ৫৫ রানে হেরে গেল এশিয়া চ্যাম্পিয়নরা।

কয়েকদিন আগেই ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশকে হারিয়ে এশিয়া কাপের শিরোপা জিতেছিল শ্রীলঙ্কা। এবারের বিশ্বকাপে তাদের নিয়ে আশাটাও ছিল অনেক। তবে গিলংয়ে রোববার (১৬ অক্টোবর) বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচেই লঙ্কানদের মাটিতে নামাল নামিবিয়া। শ্রীলঙ্কাকে ৫৫ রানে হারিয়েছে ইরাসমাসের দল। গত বিশ্বকাপেও একই গ্রুপে পড়েছিল শ্রীলঙ্কা-নামিবিয়া। আইসিসির সহযোগী আফ্রিকান দেশটিকে ৯৬ রানে গুটিয়ে দিয়ে লঙ্কানরা জিতেছিল ৭ উইকেটে। সেই হারের প্রতিশোধই নিল নামিবিয়া। 

আরও পড়ুন: কেমন হবে আমিরাত-নেদারল্যান্ডসের লড়াই? 

নামিবিয়ার দেয়া ১৬৪ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই ইনফর্ম কুশল মেন্ডিসকে হারায় শ্রীলঙ্কা। ডেভিড উইসের বলে ক্যাচ তুলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন মেন্ডিস। এরপর চতুর্থ ওভারে দুই বলে দুই উইকেট নিয়ে লঙ্কানদের চাপে ফেলে দেয় নামিবিয়ার পেসার বেন শিকঙ্গো। এলবিডব্লিউ করে হ্যাটট্রিকের সুযোগও তৈরি করেছিল শিকঙ্গো। তবে থার্ড আম্পায়ার তা নট আউট দেন।

এরপর ধনঞ্জয়া ডি সিলভাকে তুলে নেন জ্যান ফ্রাইলিঙ্ক। এরপরই হারের শঙ্কা জাগে লঙ্কান শিবিরে। এরপর রাজাপাকসেকে ফেরান স্কল্টজ। এরপর একে একে প্যাভিলিয়নে ফেরেন হাসারাঙ্গা, করুণারত্নেরা। অধিনায়ক শানাকাও দলকে জেতাতে পারেননি। তিনি আউট হন দলীয় সর্বোচ্চ ২৯ রান করে। শেষ পর্যন্ত লঙ্কানদের ইনিংস থামে ১০৮ রানে। নামিবিয়াদের হয়ে দুইটি করে উইকেট নেন ডেভিড উইসে, স্কল্টজ এবং শিকঙ্গো।

এর আগে টসে জিতে বোলিংয়ে নেমে লড়াইয়ের শুরুটা দারুণ করেছিল শানাকার দল। ১৬ রানেই নামিবিয়ার দুই ওপেনারকে ফিরিয়ে চাপে ফেলে লঙ্কার বোলাররা। তবে স্টিফান বার্ডকে নিয়ে ৪১ রানের জুটি করেন অধিনায়ক ইরাসমাস। দলীয় ৭৬ রানে ইরাসমাসকে ফেরান ডি সিলভা। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই বিদায় নেন স্টিফান বার্ড।

আরও পড়ুন: টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ /এবার খরা ঘুচবে এশিয়ার দেশের? 

তবে জ্যান ফ্রাইলিঙ্ক এবং জেজে স্মিট মিলে গড়েন ৭০ রানের জুটি। লঙ্কান বোলারদের চার-ছয়ে ভাসিয়েছেন এই দুই ব্যাটার। দলের হয়ে ২৮ বলে সর্বোচ্চ ৪৪ রান করেন ফ্রাইলিঙ্ক। এই ইনিংস খেলতে তিনি চারটি চার মেরেছেন। পাশাপাশি স্মিট ইনিংসের শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন ১৬ বলে ৩১ রান করে। লঙ্কানদের মধ্যে দুই উইকেট পেয়েছেন প্রমোদ মদুশান।   

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *