Skip to content

হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত: ভান্ডারিয়া পৌর নির্বাচনে বাধা নাই | বাংলাদেশ

হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত: ভান্ডারিয়া পৌর নির্বাচনে বাধা নাই | বাংলাদেশ

<![CDATA[

পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া পৌরসভা নির্বাচন হতে বাধা নাই। নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের ভোটার তালিকা সংশোধনের নির্দেশ সংক্রান্ত হাইকোর্টের আদেশ আট সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেছেন চেম্বার আদালত।

 

রোববার (১৮ জুন) এক মেয়র প্রার্থীর আবেদনের প্রেক্ষিতে আপিল বিভাগের চেম্বার আদালতের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম এ আদেশ দেন।

 

দেশের সর্বোচ্চ আদালতের এই আদেশের ফলে যথাসময়ে ভান্ডারিয়া পৌরসভা নির্বাচন হবে বলে জানিয়েছেন সাবেক অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট এমকে রহমান। তিনি বলেন, নির্বানের তফসিল ঘোষণার পর ভোটার তালিকা চ্যালেঞ্জ করে মামলা করার সুযোগ আইনে নেই। কিন্তু রিটকারী আইনের ব্যতয় ঘটিয়ে হাইকোর্টে মামলা করেন। ওই মামলায় ভোটার তালিকা সংশোধনের আদেশ দিয়ে নির্বাচনের তফসিল স্থগিত করেন হাইকোর্ট।  

 

তিনি আরও জানান, আদেশের বিরুদ্ধে চেম্বার আদালতে আবেদন করা হয়। আদালত হাইকোর্টের আদেশ আট সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেছেন। ফলে যথাসময়ে ভান্ডারিয়া পৌর নির্বাচন হতে আইনগত আর কোনো বাধা নেই।

 

আরও পড়ুন: সবার নজর ঢাকা-১৭ উপনির্বাচনে: বজলুর

 

গত ৩১ মে ভান্ডারিয়া পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তফসিল চ্যালেঞ্জ করে একের পর এক রিট মামলা করা হয় হাইকোর্টে। এর মধ্যে তিনটি মামলায় নির্বাচনের ওপর কোনো স্থগিতাদেশ আসেনি। তবে আরেকটি রিট মামলায় ভোটার তালিকা ২৮ দিনের মধ্যে সংশোধনের আদেশ দিয়ে নির্বাচনের তফসিল স্থগিত করে দেন বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি মাহবুব উল ইসলামের দ্বৈত হাইকোর্ট বেঞ্চ।

 

আব্দুল হালিম হাওলাদারের করা রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ১৫ জুন এই আদেশ দেন হাইকোর্ট। পরে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে চেম্বার আদালতে আবেদন করেন পৌর নির্বাচনের মেয়র প্রার্থী মাহিবুল হোসেন।

 

আরও পড়ুন: দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনে অংশ নেবে না ইসলামী আন্দোলন

 

তার পক্ষে শুনানিতে অ্যাডভোকেট এমকে রহমান বলেন, হালিম হাওলাদারের ভাই মাসুম হাওলাদার ভোটার তালিকা সংশোধনের নির্দেশনা চেয়ে রিট মামলা করেছিলেন। কিন্তু হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ সেই মামলায় নির্বাচন অনুষ্ঠানে কোনো ধরনের স্থগিতাদেশ দেয়নি। তবে হালিম হাওলাদের মামলায় হাইকোর্টের অপর একটি বেঞ্চ নির্বাচন অনুষ্ঠানের ওপর স্থগিতাদেশ দিয়েছেন। কিন্তু ভোটার তালিকা আইন-২০০৯ এর ১৪ ধারা ও ভোটার তালিকা বিধিমালা-২০১২ এর ২৬ বিধি অনুযায়ী নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর ভোটার তালিকা সংশোধন বা নির্বাচন চ্যালেঞ্জ করে মামলা করার কোনো সুযোগ নেই। কিন্তু এ ধরনের মামলা করে নির্বাচনকে বাধাগ্রস্ত করা হয়েছে। তাই হাইকোর্টের আদেশ স্থগিতের প্রার্থনা কারা হয়। 

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *