Skip to content

হোটেলে আটকে মাদ্রাসাছাত্রকে যৌন নির্যাতন | বাংলাদেশ

হোটেলে আটকে মাদ্রাসাছাত্রকে যৌন নির্যাতন | বাংলাদেশ

<![CDATA[

সিলেটের ওসমানীনগর উপজেলায় অপহরণের পর হোটেলে আটকে রেখে এক মাদ্রাসাছাত্রকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী ওই মাদ্রাসাছাত্রকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১৫ অক্টোবর) রাত ৯টার দিকে সিলেটের দক্ষিণসুরমাস্থ রশিদপুর থেকে ওই ছাত্রকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতার মো. নজরুল ইসলাম ওরফে মেনু মিয়া কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া থানাধীন আহুতিয়া গ্রামের মৃত শামসুদ্দিনের ছেলে।

রোববার (১৬ অক্টোবর) দুপুরে সিলেট জেলা পুলিশের সম্মেলন কক্ষে পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ওই মাদ্রাসাছাত্রকে গত ৯ অক্টোবর অপহরণ করা হয়েছিল। পরে একটি হোটেলে আটকে রেখে তাকে যৌন নির্যাতন করা হয়। এ ঘটনায় পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে।

আরও পড়ুন: বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে যৌন নির্যাতন ও ভিডিও ধারণের অভিযোগ

গত ৯ অক্টোবর বাড়ি থেকে মাদ্রাসার উদ্দেশে বের হওয়ার পর থেকে তার আর কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। ১২ অক্টোবর তার বাবা ওসমানীনগর থানায় লিখিতভাবে বিষয়টি অবহিত করেন। এ সংক্রান্ত জিডি দায়ের করে পুলিশ উদ্ধার অভিযান শুরু করে।

আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে উদ্ধারকারী টিমকে তত্ত্বাবধানের মাধ্যমে সমন্বয়ের জন্য ওসমানীনগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলামকে নির্দেশনা দেন। পুলিশ মাঠে নেমে জানতে পারে ভিকটিমকে আটকে রেখে ১০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করছে একটি চক্র। মুক্তিপণ না দিলে তাকে মেরে ফেলার হুমকিও দেয়া হয়। এরই মধ্যে ভিকটিমের পরিবার অপহরণকারীদের ১ হাজার টাকা প্রদানও করেন।

পরে উদ্ধারকারী টিমের সদস্যরা শনিবার (১৫ অক্টোবর) রাত ৯টার দিকে সিলেটের রশিদপুরে ফুলকলি শোরুমের সামনে থেকে ওই ছাত্রকে উদ্ধার করে। তাকে অপহরণ করে হোটেলে আটকে রেখে হাত-মুখ বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে। পরে অপহরণকারীদের গ্রেফতারে মাঠে নামে পুলিশ। তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ থেকে একজনকে গ্রেফতার করা হয়।

এ ঘটনায় সিলেটের ওসমানীনগর থানায় মামলা করেছেন ওই কিশোরের বাবা।

]]>

সূত্র: সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *